ইউপি নির্বাচন: ফটিকছড়িতে আ’লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী ৯০

ইউপি নির্বাচন: ফটিকছড়িতে আ’লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী ৯০

আনোয়ার হোসেন ফরিদ, ফটিকছড়ি: আগামী ১১ নভেম্বর অনুষ্ঠিতব্য ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন সামনে রেখে চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন পেতে ফটিকছড়ি উপজেলার ১৪ টি ইউনিয়ন থেকে ৯০ জন মনোনয়ন প্রত্যাশী দলের উপজেলা কার্যালয়ে তাদের আবেদনপত্র জমা দিয়েছেন।

শনিবার(২ অক্টোবর) সকাল থেকে রাত পর্যন্ত ব্যাপক উৎসাহ-উদ্দীপনার মধ্যে দিয়ে ১৪ ইউনিয়নে মোট ৯০ জন মনোনয়ন প্রত্যাশী নৌকা প্রতীক পেতে দলের কাছে লিখিত আবেদন করেন।

এতে বাগান বাজার ইউনিয়নে নৌকা প্রতীক চেয়ে আবেদন করেছেন বর্তমান চেয়ারম্যান রুস্তম আলী ছাড়াও ডা: শাহাদাদ হোসেন সাজু, রফিকুল ইসলাম।

দাঁতমারা ইউনিয়নে চেয়ারম্যান জানে আলম, নুরুল আলম, জয়নাল আবেদীন, ইসমাইল মজুমদার, মাষ্টার জয়নাল, সাংবাদিক আবু মনছুর।

নারায়ণহাট ইউনিয়নে বর্তমান চেয়ারম্যান হারুণ রশিদ, সাবেক চেয়ারম্যান মো: ইব্রাহিম, রতন কান্তি চৌধুরী, নুরুল আমিন, খোরশেদুল আলম মামুন, বাবলু বিশ্বাস, বিকাশ কান্তি নন্দি, ইদ্রিছ আলম।

হারুয়ালছড়ি ইউনিয়নে সাবেক চেয়ারম্যান হাসান সরোয়ার আজম, জুলফিকার আলী ভুট্টো, রবিউল হোসেন সিকদার রুবেল, কাজী রহমত উল্লাহ।

পাইন্দং ইউনিয়নে সাবেক চেয়ারম্যান শাহ আলম সিকদার, তসলিম বিন জহুর, শফিউল আজম, হাবিবুল্লাহ চৌধুরী সাবু, মোজাহারুল ইসলাম, বলাল উদ্দিন, রাইসুল ইসলাম এমিল, সাদেক আলী সিকদার শুভ।

কাঞ্চননগর ইউনিয়নে আসাদুজ্জামান তানবির, মো: জানে আলম, এটিএম আমান উল্লাহ, দিদারুল আলম।

সুন্দরপুর ইউনিয়নে চেয়ারম্যান শাহনেওয়াজ, দিদারুল বশর চৌধুরী দুুদু, রেজাউল করিম চৌধুরী, আমাল উল্লাহ চৌধুরী লিটন, জসিম উদ্দিন, শহিদুল্লাহ, মেজবাহ উদ্দিন সিকদার, ফরিদ সিকদার।

লেলাং ইউনিয়নে বর্তমান চেয়ারম্যান সরোয়ার উদ্দিন চৌধুরী শাহীন, সাবেক চেয়ারম্যান কুতুব উদ্দিন মুহুরী, জসীম উদ্দিন মুহুরী, আবুল হাসান বাবুল, মাসুদ করিম, ওয়াহিদুল আলম, সাইফুদ্দিন মাহমুদ।

রোসাংগিরী ইউনিয়নে বর্তমান চেয়ারম্যান শোয়েব আল সালেহীন, সাবেক চেয়ারম্যান শফিউল আলম, সেলিম জাবেদ, আব্দুস সালাম, আলাউদ্দিন, তারেক নেওয়াজ পলাশ, মোফাচ্ছের হোসেন।

বক্তপুর ইউনিয়নে বর্তমান চেয়ারম্যান এসএম সোলায়মান, সাবেক চেয়ারম্যান ফারুকুল আজম, মুজিবুর রহমান স্বপন, জালাল হোসেন, আব্বাস উদ্দিন বাদল, মোরশেদুল আলম।

ধর্মপুর ইউনিয়নে বর্তমান চেয়ারম্যান আব্দুল কাইয়ুম, সাবেক চেয়ারম্যান কাজী মাহমুদুল হক, মো: মাসুদ, মোশেদুল আলম, মো: সরোয়ার। জাফতনগর ইউনিয়নে চেয়ারম্যান আব্দুল হালিম, জিয়া উদ্দিন, শফিউল আলম, জিন্নাত আলী, আফাজ উদ্দিন, শহিদুল ইসলাম, মো:সেলিম, ফয়েজ উল্লাহ মুজিব, জাহাঙ্গীর আলম।

সমিতিরহাট ইউনিয়নে চেয়ারম্যান হারুণ রশিদ ইমন, শাহনেওয়াজ, নাসির উদ্দিন চৌধুরী, এডভোকেট মঞ্জুরুল আজম, সাইফুল ইসলাম মনজু, আব্দুস সবুর, মো: রফিক, ইউসুফ সিরাজ, মোকাররম হোসেন, হানিফ হোসেন। আব্দুল্লাহপুর ইউনিয়নে চেয়ারম্যান অহিদুল আলম, এস.কে.এম সেলিম, আব্দুল মাবুদ, এডভোকেট নাসির উদ্দিন মহসিন, মো: তৈয়ব আলী।

এদিকে, ১৪ ইউনিয়নে ৯০জন নেতা নৌকা প্রতীক চেয়ে আবেদন করলেও সমিতিরহাট ইউনিয়নে সর্বোচ্চ ১০ জন আবেদন করেছেন। অন্যদিকে সর্বনিন্ম আবেদন পত্র জমা পড়েছে উপজেলার ১ নং ইউনিয়ন বাগান বাজার থেকে। এ ইউনিয়নে মাত্র ৩ জন নৌকা প্রতীক চেয়েছেন।

অপরদিকে, একই দিন সকাল থেকে উপজেলা আওয়ামী লীগের এক বর্ধিতসভা দলীয় কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত হয়।

দলের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি গোলাফুর রহমানের সভাপতিত্বে এবং সাধারণ সম্পাদক নাজিম উদ্দিন মুহুরীর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত সভায় বক্তব্য রাখেন জেলা, উপজেলা ও ইউনিয় পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here